মাওয়া ফেরিঘাট,মুন্সিগঞ্জ।

আজ আমি মাওয়া ফেরিঘাট অবকাশ কেন্দ্র নিয়ে আলোচনা করব। এই ফেরিঘাটটি নদী ভ্রমণের জন্য বিখ্যাত।

এই স্থানটিতে আসার একমাত্র উদ্দেশ্য হল মানুষ এখানে এসেই ইলিশ মাছ খায়।

তাই, ফিস ভোজনের জন্য এই স্থানটি বিখ্যাত।

এই অবকাশ কেন্দ্রটি ঢাকার কিশোরগঞ্জে অবস্থিত। এই ঘাটের পাড়ে বিভিন্ন খাবার হোটেল দেখতে পাবেন।

এই হোটেলগুলোতে ইলিশ খুব চমৎকারভাবে রান্না করা হয়ে থাকে।

তাই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ ছুটে আসে শুধু মাত্র ইলিশ মাছ খাওয়ার জন্য।

এই মাওয়া ফেরিঘাটের বাজারগুলোতে ইলিশ মাছের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রজাতির মাছ দেখতে পাবেন যা সচরাচর আমাদের গ্রাম্য এলাকায় দেখা যায় না। 

তাই এখানেই মানুষ আসে বিভিন্ন মাছ কেনার জন্য।

এই অবকাশ কেন্দ্রটি ঢাকার খুব নিকটে অবস্থিত। তাই মানুষ দিনে গিয়ে দিনে আসতে পারে।

এইজন্যই একদিনের ভ্রমণ স্থান হিসেবে ফেরিঘাট মানুষের কাছে খুবই পরিচিতি লাভ করেছে। ওইখানের জলের কালার রুপালি রঙের।

সূর্যের আলোতে এই জলে ঝিকিমিকি হয় যা আপনি উপভোগ করতে পারবেন।

তাই ফেরিঘাটের পাড় ধরে হাটলেই পাবেন এই নৈসর্গিক সৌন্দর্য যা পূর্বে কখনো দেখেননি।

এই ফেরিঘাটটি পদ্মার পাড়ে বিদায় গ্রামের সবুজ অরন্য উপভোগ করতে পারবেন। আল্লাহর সৃষ্টি এই প্রাকৃতিক লীলাভূমি যেন স্বর্গের সৌন্দর্য বয়ে আনে।

নৌকা ভ্রমন করে দেখতে পারবেন পদ্মার বুকে  সূর্যাস্তের দৃশ্য যা আপনার  হৃদয়ছোবে। পাশাপাশি গরম ভাতের সাথে ইলিশ মাছ কি যে স্বাদ তা আপনি না খেলে বুঝবেন না।

আপনি যদি স্পীডবোটে উঠতে চান, তাহলে আপনাকে একশত পঞ্চাশ টাকা প্রদান করতে হবে। ফলে আপনি মাওয়া ফেরিঘাটের এক পার হইতে অন্য পারে ভ্রমণ করতে পারবেন।

মাওয়া ফেরিঘাটে যাওয়ার উপায়

প্রথমে আপনি ঢাকার গুলিস্তান অথবা যাত্রাবাড়ীতে যাবেন। তারপর সেখান থেকে বিটিআরসি অথবা ইলিশ পরিবহন বাসে উঠবেন। আপনাকে ৭০ টাকা ভাড়া দিতে হবে।

তারপর সেখান থেকে সরাসরি ফেরিঘাটে যেতে পারবেন। অথবা আপনি মিরপুর দশ নাম্বার গেটে যাবেন।

এখন সেখান থেকে স্বাধীন পরিবহনে সরাসরি ফেরিঘাটে  পৌঁছাতে পারবেন। পাশাপাশি ফার্মগেট অথবা শাহবাগ থেকেও আপনি ফেরিতে যেতে পারবেন।

মাওয়া ফেরিঘাটে কোথায় খাবেন

এই ফেরিঘাটে বিভিন্ন রকমের খাবার হোটেল রয়েছে যেখানে আপনি ইলিশ মাছ ভাজা খেতে পারবেন।

পাশাপাশি আপনার পছন্দ অনুযায়ী ইলিশ মাছ বাজার থেকে কিনে এনে হোটেলে ভাজি করে খেতে পারবেন।

আপনি যদি এই ফেরিঘাটে খেতে না চান তাহলে পদ্মার অন্যপাড়ে কাওড়াকান্দি নামে একটি ঘাট আছে সেখানের হোটেল গুলোতে খেতে পারবেন।

ইলিশ মাছের আসল স্বাদ পাওয়ার জন্য গরম ভাতের সাথে একটু শুকনো মরিচ দিয়ে খেতে পারেন যার স্বাদ অতুলনীয়।

আপনি বাজার থেকে ইলিশ মাছ সাইজ অনুযায়ী আশি থেকে একশত টাকা দিয়ে কিনতে পারবেন। আশাকরি মাওয়া ফেরিঘাট সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে জেনেছেন। আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হোন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.